মলয় দেবনাথ আলিপুরদুয়ারঃ করোনায় মৃত ব্যক্তির পরিবার দেহ নিতে অস্বীকার করে। পঞ্চায়েত মানে মানে মানে কেটে পড়েন।
মানবিকতার খাতিরে সেই দেহ দাহ করার উদ্যোগ নেয় পুলিশ কর্মীরা। ওসি বিরাজ মুখোপাধ্যায় নিজের ও পরিবারের কথা না ভেবে শাস্ত্র মতে করোনায় মৃত ব্যক্তির মুখাগ্নি করেন।

আর তাতেই যেন গেল গেল ভাব শুরু হয় ডুয়ার্সের শামুকতলায়। কিছু স্বার্থান্বেষী মানুষজন ওসির বিরুদ্ধে লোকজনকে ভুল বুখিয়ে ক্ষিপ্ত করে তোলেন লোকজনকে!

শনিবার রীতিমতো ডুয়ার্সের শামুকতলা থানার ঢিপধুরা চৌপতিতে শনিবার পথ অবরোধ করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। তাদের দাবি ছিল, করোনা সংক্রমিত ব্যক্তির মৃত্যুর পর শ্মশান ঘাট স্যানিটাইজ করা হয়নি।‌ আর এই নিয়েই অবরোধ করেন এলাকার বাসিন্দারা। তারা গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধানকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখান । পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আলোচনার ভিত্তিতে অবরোধ তুলে নেন । গোটা দেশে করনা সংক্রমণ চলছে ঠিক সেই সময়ে রাজ্য সড়ক অবরোধ এর ঘটনা মানতে পারেনি শামুকতলা থানার পুলিশ ।‌

শেষ পর্যন্ত আজ থানার পুলিশের পক্ষ থেকে এলাকার বাসিন্দাদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের হয়েছে। শামুকতলা থানার ওসি বিরাজ মুখোপাধ্যায় জানিয়েছেন, এলাকায় ২২ জনের নামে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে এর মধ্যে ৩ জনকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে ।পুলিশ সূত্রে আরো খবর ওই অবরোধে কম করে একশো জন ছিলেন।তাদের নামের তালিকা তৈরি করা হচ্ছে খুব শীঘ্রই তাদের বিরুদ্ধেও মামলা দায়ের করা হবে।

সবার আগে খবর পেতে , পেইজে লাইক দিন