১২ বছর বয়সী এক কিশোরীকে ধর্ষণ।মেয়েটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়েছে।
ঘটনায় অভিযুক্ত সঞ্জয় পাত্র নামে বছর ৩৮ এর এক ব্যক্তিকে আটক করে নিয়ে গেছে বড়তলা থানার পুলিশ।
থানার বাইরে স্থানীয় বাসিন্দাদের জমায়েত।
বিষয়টি জানাজানি এলাকার বাসিন্দারা অভিযুক্ত সঞ্জয় কে ল্যামপোস্টে বেঁধে বেধড়ক মারধর করে।
এরপরই ঘটনাস্থলে যায় পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, যে মেয়েটিকে ধর্ষণ করা হয়েছে, তাঁর মা একজন যৌন কর্মী।
অভিযুক্ত সঞ্জয় পাত্র, মেয়েটির মায়ের বাবু।
এই সুযোগে দিনের পর দিন কিশোরীকে ধর্ষণ করে গেছে সঞ্জয় বলে অভিযোগ।
এমনকি এই বিষয়ে মেয়েটি কাউকে কিছু বললে তাঁর মাকে মেরে ফেলা হবে বলে হুমকি দিত অভিযুক্ত বলেও অভিযোগ।

এদিকে আজকে সকালে কিশোরীটির আচরণ দেখে সন্দেহ হয় তাঁর মায়ের।
তারপরই পুরো ঘটনাটি কিশোরীটি তাঁর মাকে জানায়।
এরপরই এলাকার বাসিন্দারা বিষয়টি জানার পরেই অভিযুক্ত কে ল্যামপোস্টে বেঁধে বেধড়ক মারধর করে।
বড়তলা থানা সূত্রে জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত সঞ্জয় পাত্র, কিশোরীটি এবং তাঁর মা, তিনজনকেই থানায় নিয়ে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

খতিয়ে দেখা হচ্ছে, মেয়েটির মায়ের ভূমিকাও।

সবার আগে খবর পেতে , পেইজে লাইক দিন