সংবাদদাতা,মালবাজার,২৭ফেব্রুয়ারি। চার দশক ধরে পার্টি হোল টাইমার। মাল এলাকার প্রাক্তন জোনাল সম্পাদক ও শ্রমিক নেতা চানু দে বেশকিছু দিন ধরে বার্ধক্যজনিত কারনে গুরুতর অসুস্থ। বর্তমানে শিলিগুড়ির এক বেসরকারি নার্সিহোমে আইসিইউতে ভর্তি। চিকিৎসা চলছে। এহেন এক মানুষের দুর্দিনে দলের কেউ খোঁজখবর করেনা।এমন অভিযোগ পরিবারের লোকেদের। সম্প্রতি অসুস্থ এই বাম নেতার মেয়ে শিল্পী দে ফেসবুক ওয়ালে পোস্ট করে লিখেছেন, “চার দশক ধরে পার্টি হোল টাইমার।ডুয়ার্সের মানাবাড়ি, রানীচেরা, মালনদী, সহ বিভিন্ন চাবাগানের শ্রমিকদের সাথে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াই করেছেন আজ তার জীবন যুদ্ধের লড়াইতে দলের এরিয়া কমিটি বা জেলা কমিটির কেউ খোঁজখবর করেন না। চাবাগানের শ্রমিকরা খোজখবর করলেও দলের কেউ খোঁজ নেয় না”।

প্রবীণ এই সিপিএম নেতার পরিবারের সদস্যার এইরকম অভিযোগ ওঠার পর মাল এলাকায় সিপিএম দলের ভিতরে চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। দলের ববর্তমান কিছু নেতা বিষয়টি এড়িয়ে গেছে, কেউ আবার পাশে থাকার কথা বলেছেন, আবার কেউ অভিযোগ ভিত্তিহীন বলেছেন।
মাল এরিয়া কমিটির সদস্য রাজা দত্ত এই নিয়ে বলেন, চানু দে জেলা কমিটির আমন্ত্রিত সদস্য। তার বিষয়ে বলার এক্তিয়ার আমার নেই। যা বলার জেলা কমিটি বলবে। তবে বলতে পারি উনি যেদিন হাসপাতালে ভর্তি হন আমি নিজে হাসপাতালে গিয়েছি।
দলের জেলা কমিটির সম্পাদক সলিল আচার্য বলেন, আমরা দলের স্থানীয় নেতৃত্বকে বলেছি যে ওনার খোঁজখবর করতে। পাসে থাকার কথা বলেছি। উনি সুস্থ হয়ে ফিরে আসুক সেই কামনা করি।
চানু দে’র সাথে একই সময়ে দলের নেতা ও পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি ছিলেন প্রশান্ত শিকদার। তিনি বলেন, অভিযোগ ঠিক নয়, আমি নিজে নিয়মিত খোঁজ করি। দলের নেতা সমীর ঘোষও খোঁজ নেয়।

একদা এই সিপিএমের নেতা চানু দে বহু আন্দোলন করেছেন। বর্তমানে অসুস্থ। তার তিন কন্যা রয়েছে। রয়েছে অনেক গুনমুগ্ধ। তারা সবাই চাইছেন উনি দ্রুত আরোগ্য হয়ে ফিরে আসুক।

সবার আগে খবর পেতে , পেইজে লাইক দিন