৯ নভেম্বর, ২০২০ কেন্দ্র সরকার ডিজিটাল মিডিয়াকে প্রিন্ট এবং ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সমান গুরুত্ব দিয়ে স্বীকৃতি দিয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকার একটি নির্দেশ জারি করে ডিজিটাল বা অনলাইন মিডিয়া, চলচ্চিত্র এবং অডিও-ভিসুয়াল প্রোগ্রামকে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের অধীনে নিয়ে এসেছে। এই প্রস্তাবে রাষ্ট্রপতি স্বাক্ষরও করেছেন। অর্থাৎ সমস্ত অনলাইন নিউজ পোর্টাল এখন কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের অধীনে।

এরই মধ্যে রাজ্যের সবকটি জেলা থেকে সাংবাদিকরা যারা প্রায় দীর্ঘদিন ধরেই ডিজিটাল মাধ্যমের সাহায্যে নানা খবর পরিবেশন করছিলেন তাঁরা একত্রিত হয়ে তৈরি হল ডিজিটাল মিডিয়া অ্যাসোসিয়েশন। বর্তমানে যাঁদের সদস্য সংখ্যা ৩ শতাধিক। যার সভাপতি পদে সর্বসম্মতি ক্রমে নির্বাচিত হন সাংবাদিক অরিন্দম রায় চৌধুরি ও সাধারন সম্পাদক সুব্রত রায়।

১৮ নভেম্বর ২০২০, বুধবার পি আই বি-র আমন্ত্রনে ডিজিটাল মিডিয়া অ্যাসোসিয়েশনের কার্যকরী সমিতির সদস্যরা কলকাতার PIB অফিসে DG আর মিশ্রার সঙ্গে দেখা করেন।
পাশাপাশি ডিজিটাল সংবাদকর্মীদের একাধিক দাবি সম্বলিত একটি পত্র লিখিত আকারে DG র কাছে পেশ করেন। আলোচনা হয় আগামী দিনে কোন পথে হাঁটতে চলেছে ডিজিটাল মিডিয়া এবং কোন পথে তার ভবিষ্যৎ ইত্যাদি নিয়ে।

এদিন সংঘটনের সভাপতি অরিন্দম রায় চৌধুরী ব্যাক্ষা করে বোঝান যে কেন প্রয়োজন এই সংঘটনের ও কি ভাবে সদস্য বাছাই করা হচ্ছে সংঘটনের জন্য। অপরদিকে এই বিষয় ডিজিটাল মিডিয়া অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাচিত সাধারন সম্পাদক সাংবাদিক সুব্রত রায় বলেন, কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে সেতুবন্ধনের কাজ শুরু হয়েছে। ডিজিটাল মিডিয়াকে আর অগ্রাহ্য করা যাবে না।

এদিনের পি আই বি-র পূর্বাঞ্চলের নির্দেশক রবীন্দ্রনাথ মিশ্রা ও উপ নির্দেশক চিত্রা গুপ্ত-র সঙ্গে যে আলোচনার সময় উপস্থিত ছিলেন সভাপতি অরিন্দম রায় চৌধুরি, সম্পাদক সুব্রত রায়, সহ সভাপতি শুভ্রজিৎ দত্ত, সহ সম্পাদক দেবাশীষ সেনগুপ্ত, কোষাধ্যক্ষ মৌসুমি দেওয়ানজি। কার্যকরী সমিতির অন্যান্য সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রণব বিশ্বাস, সমিত সিনহা, বিশ্বজিৎ দেওয়ানজি এবং সুস্মিতা সাহা।

উল্লেখ্য, ডিজিটাল মিডিয়া অ্যাসোসিয়েশন বা DMA এরাজ্যে প্রথম সংঘটন যেখানে ডিজিটাল প্লাটফর্মে কাজ করেন এমন সংবাদকর্মীদের দাবি আদায়ের জন্য কাজ করতে চাইছে। দাবি আদায়ের জন্য এক ছাতার তলায় এনে সকলকে নিয়ে নির্দিষ্ট দিশার দিকে এগোতে চাইছে।

ডিজিটাল মিডিয়া অ্যাসোসিয়েশনই প্রথম সংঘটন যারা আমন্ত্রণ পেলেন স্বয়ং পি আই বি-র মত কেন্দ্রীয় সরকারি সংস্থার কাছ থেকে আলোচনার জন্য।

সবার আগে খবর পেতে , পেইজে লাইক দিন